জাতীয় ঐক্যের নামে সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হেরে যাওয়ার ভয়ে সাম্প্রদায়িক শক্তি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ওপর আক্রমণ করতে পারে। জাতীয় ঐক্যের নামে বিএনপি এই সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ করছে।

আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর পলাশী মোড়ে শ্রীকৃষ্ণের জন্মবার্ষিকীর শোভাযাত্রা উদ্বোধনের আগে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ওবায়দুল কাদের এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তি নির্বাচনে হেরে যাবে এই ভয়ে নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতন চালাবে। দুর্বল ভেবে আঘাত দেবে। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সুসম্পর্ক বিরাজমান, সেই সুসম্পর্ক বিনষ্টের চক্রান্ত করবে। ভারতের সঙ্গে দীর্ঘদিনের সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হবে।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় ঐক্যের নামে বিএনপি সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ করছে। এ দেশে দুই ধরনের শত্রু আছে, একটি গোপন শত্রু আরেকটি প্রকাশ্য শত্রু। তিনি বলেন, ‘আমরা প্রকাশ্য শত্রু থেকে গোপন শত্রুকে বেশি ভয় পাই। এখন ছদ্মবেশী গোপন শত্রুরা তৎপর। এদের রুখতে হবে, এদের প্রতিরোধ করতে হবে। আজকে জাতীয় ঐক্যের নামে বিএনপি সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ করার ডাক দিয়েছে। এই ফাঁদে আপনারা পা দেবেন না। এটা জাতীয় ঐক্য না, এটা সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ।’

জাতীয় নির্বাচন না হওয়ার সম্ভাবনা বেশি—গণফোরাম সভাপতি ড. কামালের এমন বক্তব্য বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কাজ হবে না। ভোটের বিরুদ্ধে যারা দাঁড়াবে জনগণই তাদের প্রতিরোধ করবে। নির্বাচন হবে ইনশা আল্লাহ, বাংলাদেশে উৎসবমুখর পরিবেশে আগামী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।’

মন্ত্রী কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের সবাইকে শ্রীকৃষ্ণের চেতনা ধারণ করে সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রতিহত করে, পরাজিত করে বিজয় অর্জনের শপথ নিতে হবে। বাংলাদেশের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মনে রাখতে হবে, সংখ্যালঘুবান্ধব সরকার একমাত্র শেখ হাসিনার সরকার।

২০০১ সালের সংখ্যালঘু নির্যাতনের কথা তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনাদের কি ২০০১ সালের কথা মনে আছে? সনাতন ধর্মাবলম্বীরা সারা বাংলায় নিপীড়িত, নির্যাতিত, ধর্ষিত হয়। ফাহিমা-পূর্ণিমা এদের কথা কি আপনাদের মনে আছে? কত হিন্দু নারীকে পৈশাচিকভাবে ধর্ষণ করেছে ওই বর্বর শক্তি। কত হিন্দু বাড়িঘর হারিয়েছে। নিরীহ মানুষের ওপর নির্যাতন চালিয়ে ঘরবাড়ি জালিয়ে দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, মনে আছে আপনাদের সেই নির্যাতনের কথা। এবার যদি সেই অপশক্তি আবার ক্ষমতায় আসতে পারে, ২০০১ সালের চেয়েও ভয়াবহ রক্তাক্ত সময় আপনাদের জন্য ঘনিয়ে আসবে।

Comments..
sidebar
আগের সংবাদ
পরের সংবাদ