বাংলাদেশের মাদকবিরোধী অভিযান নজর রাখছে জাতিসংঘের মাদক ও অপরাধবিষয়ক সংস্থা (ইউএনওডিসি)

বাংলাদেশের মাদকবিরোধী অভিযান নজর রাখছে জাতিসংঘের মাদক ও অপরাধবিষয়ক সংস্থা (ইউএনওডিসি)। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমন তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

বিবৃতিতে সংস্থাটির মুখপাত্র সদস্য দেশগুলোকে মাদক নিয়ন্ত্রণে ভারসাম্য ও মানবাধিকার রক্ষার প্রতিশ্রুতি মেনে চলার আহ্বান জানান। ভিয়েনা থেকে শনিবার ওই বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে সদস্য দেশগুলোর প্রতি মাদক নিয়ন্ত্রণ বিষয় তিনটি আন্তর্জাতিক কনভেনশন ও জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের বিশেষ অধিবেশনের ফলাফলের সঙ্গে সংগতি রেখে আচরণ করার আহ্বান জানানো হয়। এতে ভারসাম্যপূর্ণ ও মানবাধিকার ঠিক রেখে মাদক নিয়ন্ত্রণের কথা বলা হয়।

ইউএনওডিসির এই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘আমরা আন্তর্জাতিক মান ও রীতিনীতির সঙ্গে সংগতি রেখে সঠিক আইনি নিরাপত্তার মাধ্যমে যাতে অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা যায়, সে জন্য সব দেশকে সহায়তা দিতে এবং তাদের তথ্যপ্রমাণভিত্তিক সুরক্ষা, চিকিৎসা, পুনর্বাসন এবং পুনঃপ্রতিষ্ঠায় সহায়তা দিতে প্রস্তুত।’

বাংলাদেশে ১৪ মে থেকে আনুষ্ঠানিক মাদকবিরোধী অভিযান শুরু করেছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। গত ১৮ দিনে তাঁদের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ১২৭ সন্দেহভাজন মাদক ব্যবসায়ী। পাশাপাশি গ্রেপ্তার হয়েছেন কয়েক হাজার। এ নিয়ে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন বিরূপ প্রতিক্রিয়া শুরু করেছে। তারা বিষয়টিকে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বলে অভিহিত করেছে। ইউএনওডিসির এ বিবৃতি এর সঙ্গে ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে। তবে বাংলাদেশের সরকারের পক্ষ থেকে বরাবরই বলা হচ্ছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতেই মাদক অপরাধীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছে।

Comments..
sidebar
আগের সংবাদ
পরের সংবাদ