সাংসদ হিসেবে বেতনের ৯০ লাখ রুপি নিলেন না শচীন টেন্ডুলকার

• রাজ্যসভার সদস্য ছিলেন শচীন টেন্ডুলকার
• ৬ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি
• অবসর নেওয়ার সময় বেতনের ৯০ লাখ রুপি নিলেন না ‘লিটল মাস্টার’

ভারতীয় পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভার সদস্য হয়েছিলেন শচীন টেন্ডুলকার। ৬ বছর সাংসদ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। অবসর নেওয়ার সময় বেতন হিসেবে প্রাপ্য ৯০ লাখ রুপির পুরোটাই দান করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে।

টেন্ডুলকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তিনি রাজ্যসভার অধিবেশনে ঠিকমতো উপস্থিত থাকেন না। কিন্তু অবসর নেওয়ার সময় তিনি যা করলেন, সেটা উদাহরণই হয়ে থাকছে সবার জন্য।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ও ‘লিটল মাস্টারে’র এই মহানুভবতার প্রশংসা করেছে। এক বার্তায় বলা হয়েছে, দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর ব্যাপারে দারুণ কাজে লাগবে এই অনুদান।

অধিবেশনে খুব নিয়মিত উপস্থিত না থাকলে সাংসদ হিসেবে যথেষ্ট কাজ করেছেন টেন্ডুলকার। তাঁর দপ্তরের বরাতে দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, গত ৬ বছরে মোট ১৮৫টি প্রকল্পে তিনি অর্থ বরাদ্দ দিয়েছেন। ৭ কোটি রুপিরও বেশি তিনি খরচ করেছেন গোটা ভারতের শিক্ষা অবকাঠামো উন্নয়নে। পশ্চিমবঙ্গেও শিক্ষাক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি উন্নয়নকাজ হয়েছে ক্রিকেট কিংবদন্তির সরাসরি হস্তক্ষেপে।

Comments..
sidebar
আগের সংবাদ
পরের সংবাদ